Tuesday, January 5, 2016

সিলেট সুপারস্টারসের মালিকের সাথে তামিমের শাস্তি

বিপিএলে সিলেট সুপার স্টার্সের মালিকের সঙ্গে তামিম ইকবালের তর্কাতর্কির ঘটনায় দুইজনকেই জরিমানা করতে যাচ্ছে বিসিবি। বোর্ডের শৃঙ্খলা কমিটির প্রধান শেখ সোহেল জানিয়েছেন, আসছে জিম্বাবুয়ে সিরিজ শেষে নির্ধারণ করা হবে জরিমানার পরিমাণ।বিতর্কিত ঘটনাটি ঘটেছিল বিপিএলের দ্বিতীয় দিনেই, গত ২৩ নভেম্বর। দীর্ঘ তদন্তের পর মঙ্গলবার জানানো হলো সিদ্ধান্ত।বিসিবিতে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে শেখ সোহেল বলেন, “তামিমের ব্যাপারটি নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে এত দেরি হওয়ায় আমি দু:খিত। আমি আপনাদের (সংবাদকর্মী) সঙ্গে কথা বলেছি, মাঠে যারা ছিল তাদের সঙ্গে কথা বলেছি, ক্রিকেটারদের সঙ্গে কথা বলেছি, বিসিবি স্টাফরাও ছিল। তারপর ঠিক করেছি, দুজনকেই শাস্তি দেওয়া হবে। আর্থিক জরিমানা করা হবে।”বিপিএলের দ্বিতীয় দিনে চিটাগং ভাইকিংস ও সিলেট সুপার স্টার্সের ম্যাচের আগে নাটকীয় সব ঘটনা প্রবাহের সময় ঘটে গালিগালাজের ওই ঘটনা। সিলেটের বিদেশি দুই জন ক্রিকেটারদের অনাপত্তিপত্র না পাওয়ার জটিলতায় ম্যাচ শুরু হতে দেরি হয় ৭০ মিনিট। এরই এক পর্যায়ে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় করতে দেখা যায় তামিম ইকবাল ও সিলেট সুপার স্টার্সের চেয়ারম্যান আজিজুল ইসলামকে। খোলা মাঠে, গ্যালারির খুব কাছে দর্শকেই সামনেই ঘটেছে এই ঘটনা।পরে মাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে নিজে থেকেই সে প্রসঙ্গ টেনে ক্ষোভে ফেটে পড়েছিলেন তামিম। বলেছিলেন, “ক্রিকেটারদের সঙ্গে ভিক্ষুকের মতো আচরণ মেনে নেওয়া যায় না।” দাবী করেছিলেন, পরিবার ও বাবা-মা তুলে গালিগালাজ করা গয়েছিল তাকে।তামিম নিজেকে ঘটনার শিকার দাবি করলেও ঘটনা বাড়াবাড়ির পর্যায়ে যাওয়ায় শেখ সোহেল দায় দেখছেন চিটাগং অধিনায়কেরও।“সবার সঙ্গে কথা বলে আমি যা বুঝেছি, দুইজনেরই দোষ আছে। অন্য কেউ যদি শুরু করে, তামিমের উচিত ছিল ধৈর্য্য ধরা। তমিম জাতীয় দলের একজন ক্রিকেটার, বিপিএলের আইকনও ছিলেন। তাকে অনেক ধৈর্য্য ধরতে হবে, অন্যরা যত কিছই বলুক। সে ক্রিকেট মাঠে ছিল, মাঠে থেকে এই ধরনের ব্যবহার তার করা উচিত হয়নি।”সেক্ষেত্রে মাঠে ঢুকে পড়ায় দায়টা আরও বেশি সিলেটের চেয়ারম্যানের। শেখ সোহেল সেটা স্বীকারও করলেন।“ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিক ওখানে কিভাবে প্রবেশ করলেন? ক্রিকেটারের কাছে যাওয়া বা কথা বলার অধিকার তার নেই। এজন্য তারও শাস্তি হবে।”শৃঙ্খলা কমিটির প্রধান জানালেন, ঘটনার শুরু সিলেটের মালিক করেছেন বলে তার শাস্তিটাও হবে বেশি।“জরিমানার অর্থ কম-বেশি হবে। যেহেতু মালিক অন্যায়ভাবে মাঠে ঢুকে জাতীয় দলের ক্রিকেটারের সঙ্গে এমন আচরণ করেছেন, তার জরিমানা বেশি। উনিই শুরু না করলে এমন হতো না।”এই বিসিবি পরিচালক জানালেন, জিম্বাবুয়ে সিরিজ শেষে চূড়ান্ত করা হবে জরিমানার পরিমাণ।
সূত্র : বিসিবি