Sunday, January 3, 2016

২০১৬ সালের বাংলাদেশের সিডিউল

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হোম সিরিজ:- বছরের শুরুতেই প্রতিপক্ষ হিসেবে পাচ্ছে জিম্বাবুয়েকে। জানুয়ারি মাঝপথে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফরে আসার কথা রয়েছে। একটি টেস্ট ও তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলার কথা দুই দেশের। যদিও জিম্বাবুয়ে টেস্টের পরিবর্তে পাঁচটি টি-টোয়েন্টি খেলতে চাচ্ছে।এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি: টানা তৃতীয়বারেরমত এশিয়া কাপ টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। এবারের এশিয়া কাপ হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি থেকে ৬ মার্চ পর্যন্ত ঢাকায় ওফতুল্লাতে এশিয়া কাপ আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। পাঁচ দলের এশিয়া কাপে সরাসরি খেলবে বাংলাদেশ।আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ: এশিয়া কাপের আমেজ কাটতে না কাটতেই বাংলাদেশ মাঠে নেমে যাবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে। ৮ মার্চ থেকে ৩ এপ্রিল পর্যন্ত ভারতে টি- টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ষষ্ঠ আসর বসবে। প্রথম রাউন্ডের বাঁধা টপকে বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ড বা সুপার টেন খেলতে হবে বাংলাদেশকে। প্রথম রাউন্ডে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস, আয়ারল্যান্ডস ও ওমান। সুপার টেনে খেলতে পারলে বাংলাদেশখেলবে ভারত, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে।ভারত সফর: ২০১৬ সালে প্রথমবারের মত ভারত সফরে যাবে বাংলাদেশ। টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়ার পর সেটাই হবে বাংলাদেশের প্রথম দ্বিপাক্ষিক ভারত সফর। আগস্টের শেষ দিকে ভারতে যাবে বাংলাদেশ। সেখানে একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি ইডেন গার্ডেনসে হওয়ার কথা রয়েছে। ২৫ বছর পর ইডেন গার্ডেনসে খেলবে বাংলাদেশ।ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হোম সিরিজ: অক্টোবরের ইংল্যান্ডকে আতিথীয়তা দেবে বাংলাদেশ। ২০০৩/০৪ ও ২০০৯/১০ সালের পর চতুর্থবারের মত বাংলাদেশে আসবে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল। এবারের সফরে দুটি টেস্ট ও তিনটি ওয়ানডে খেলার কথা রয়েছে দুই দলের। তবে কোনো টি-টোয়েন্টি ম্যাচ নেই।নিউজিল্যান্ড সফরে বাংলাদেশ: বছরের শেষ প্রান্তে ডিসেম্বরে নিউজিল্যান্ডে যাওয়ার সিডিউল রয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। দুটি টেস্ট, তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টি- টোয়েন্টি খেলার কথা রয়েছে দুই দলের। তবে সফরটি শেষ হতে ২০১৭ সাল হয়ে যাবে। ২০০১/০২, ২০০৭/০৮, ২০০৯/১০ সালের পর চতুর্থবারের মত নিউজিল্যান্ড ভ্রমণ করবেবাংলাদেশ।নোট:আইসিসির ফিউচার ট্যুর প্ল্যান (এফটিপি) অনুযায়ী সিডিউল তৈরী করা হয়েছে।বিশেষ প্রয়োজনে এ সিডিউলে পরিবর্তন আসতে পারে।