Friday, December 25, 2015

নতুন দিগন্তে, কেন্দ্রীয় চুক্তিতে মুস্তাফিজ

মুস্তাফিজুর রহমান। অভিষেকের পর থেকে
কেবল শিরোনামই হয়ে আসছেন।
পাকিস্তানের বিপক্ষে গত এপ্রিলে টি২০
ম্যাচ দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট
অভিষেক হয়েছিল কাটার মাস্টার
মুস্তাফিজুর রহমানের। তারপর থেকে এই
বাঁহাতি পেসারের দিনগুলো কাঠে
স্বপ্নের মতো। এরই মধ্যে তিন ফরম্যাটের
ক্রিকেটে বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে
নজরকাড়া পারফরমেন্স করে যাচ্ছেন তিনি।

এমন পারফরমেন্সের কারণে
স্বাভাবিকভাবেই এবার বাংলাদেশ
ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কেন্দ্রীয়
চুক্তির অন্তর্ভুক্ত হতে যাচ্ছেন তিনি।
চলতি ডিসেম্বরেই শেষ হচ্ছে
ক্রিকেটারদের চুক্তির মেয়াদ। জাতীয়
দলের ক্রিকেটারদের চুক্তি নবায়ন করা
হবে নতুন বছরের শুরুতে। এরই মধ্যে ক্রিকেট অপারেশন্স বিভাগ থেকে ক্রিকেটারদের বেতন বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।।বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে মুস্তাফিজসহ।অলরাউন্ডার সাব্বির রহমান রুম্মনের নামও শোনা যাচ্ছে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ২০১৫ সালটা
বাংলাদেশ দলের স্বপ্নের মতো কেটেছে।
বাংলাদেশ দলের এই সাফল্যের নেপথ্যের
কারিগরদের মধ্যে অন্যতম সদস্য হলেন
মুস্তাফিজুর রহমান। তাই এবার বিসিবির
কেন্দ্রীয় চুক্তিতে বাঁহাতি এই কাটার
মাস্টারের নাম শোনা যাচ্ছে। শুক্রবার
সন্ধ্যায় এ প্রসঙ্গে জাতীয় দলের নির্বাচক
কমিটির অন্যতম সদস্য হাবিবুল বাশার সুমন।বলেন, ‘বোর্ড থেকে আমাদেরকে জানানো।হয়েছে। নতুন করে চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারদের নামের তালিকা পাঠাতে। আমরা আগামী।২৮ ডিসেম্বরে বোর্ডের কাছে চুক্তিবদ্ধ।নতুন খেলোয়াড়দের নামের তালিকা পাঠিয়ে দেব।’

বিসিবিতে কান পাতলেই শোনা যাচ্ছে
কেন্দ্রীয় চুক্তির আওত্তায় আসতে যাচ্ছেন
কাটার মাস্টার মুস্তাফিজুর রহমান এবং
ডানহাতি তরুণ অলরাউন্ডার সাব্বির রহমান রুম্মান। এ বিষয়টি নিয়ে নির্বাচক কমিটির সদস্য বলেন, ‘গত এক বছর যারা
বাংলাদেশের দলের হয়ে ভালো
পারফরম্যান্স করেছেন তাদের বিসিবির
কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকার সম্ভাবনাকে
আরো জোরালো করেছে। এছাড়া যারা
কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ছিলেন, কিন্তু
পারফরম্যান্স ভালো হয়নি, তারা বাদ
পড়তে পারেন। তাই আমরা ঠিক করেছি
যারা আগামী এক বছর জাতীয় দলের হয়ে
ভালো পারফরম্যান্স করতে পারবেন। এমন
খেলোয়াড়দেরকে নতুন চুক্তির মধ্যে রাখার
চিন্তা-ভাবনা করছি।’

বিসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ২০১৪ সালে
ছিলেন ১২ জন ক্রিকেটার। কিন্তু ২০১৫
সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ১৪ জনে। আর ২০১৬
সালে সেই চুক্তিতে বাড়ছে আরো একজন
অর্থাৎ ১৫ জন। বর্তমানে বিসিবির
কেন্দ্রীয় চুক্তিতে রয়েছে ১৪ জন। তার
থেকে দুই-একজন ক্রিকেটার বাদ পড়তে
পারেন। আর নতুন করে কয়েকজন যুক্ত হতে
পারেন।

বিসিবির নতুন করে কেন্দ্রীয় চুক্তির মধ্যে
কারা থাকছেন আর কারা বাদ পড়তে
যাচ্ছেন এ ব্যাপারে কিছুই বলতে রাজী
হননি নির্বাচক কমিটির অন্যতম সদস্য ও
জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক হাবিবুল
বাশার সুমন।

উল্লেখ্য ২০১৫ সালে বিসিবির কেন্দ্রীয়
চুক্তিতে এ-প্লাস শ্রেণীতে ছিলেন
মাশরাফি বিন মর্তুজা, সাকিব আল
হাসান, মুশফিকুর রহিম ও তামিম ইকবাল। ‘এ’ শ্রেণীতে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, ‘বি’ শ্রেণীতে নাসির হোসেন, রুবেল হোসেন,
ইমরুল কায়েস, শফিউল ইসলাম।
‘সি’শ্রেণীতে মুমিনুল হক ও এনামুল হক
বিজয় আর ‘ডি’ শ্রেণীতে আল-আমিন
হোসেন, আরাফাত সানি ও তাইজুল ইসলাম ছিলেন।